শীতকালে নিরোগ থাকতে চান

শীতকালে আপনি যদি নিরোগ থাকতে চান তবে প্রতিদিন পান করুন হলুদ পানি। হলুদে থাকা অ্যান্টিফাঙ্গাল, অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি ভাইরাল উপাদান বহু অসুখ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে।

করোনা পরিস্থিতিতে যে জিনিসটার সবথেকে বেশি প্রয়োজনীয়তা রয়েছে, সেই রোদ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়াতে সাহায্য করে হলুদ। তাই শীতকালে কেন রোজকার ডায়েটে হলুদের ব্যবহার বেশি করে করবেন, তা জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

শীতকাল আসতেই বহু মানুষের মধ্যে গাঁটের ব্যথা, ঠান্ডা লাগা, কফের সমস্যা দেখা দিতে শুরু করে। তাই এই সময়ে এক চিমটে হলুদ দুধে কিংবা চায়ের সঙ্গে মিশিয়ে খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এক চিমটে হলুদেই পাওয়া যাবে অনেক উপকার।

শীতকালে খুশির আমেজে অনেক অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া হয়ে থাকে। এর ফলে অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধির সমস্যাও দেখা যায়। শরীর থেকে দূষিত পদার্থগুলিকে বের করে অতিরিক্ত ওজন কমানোর জন্য দারুণ উপকারী হলুদ।

হলুদ শুধু খাবারের স্বাদ বাড়াতে কিংবা রংই পরিবর্তন করতে সাহায্য করে না। হলুদ ত্বক উজ্জ্বল করতেও সাহায্য করে। হজমের সমস্যা দূর করে শরীর সুস্থ রাখে হলুদ।শরীর থেকে যাবতীয় ক্ষতিকর পদার্থ দূর করে দেওয়ার জন্য হলুদের জুড়ি মেলা ভার।

শীতকাল পড়লেই বহু মানুষের মধ্যে জ্বরের প্রকোপ দেখা দেয়। গলা ব্যথা, জ্বরের মতো অসুখ প্রতিরোধের জন্য প্রতিদিনের খাবারে এক চিমটে হলুদের ব্যবহার করার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞরা আরও জানাচ্ছেন, বহু বছর ধরে বাড়িতে বাড়িতে রান্নায় এবং আরও অনেক কিছুতে ব্যবহার করা হয় হলুদ। এটি বিভিন্ন অসুখ প্রতিরোধের পাশাপাশি ক্যানসার এবং স্মৃতিভ্রংশ বা অ্যালজাইমার্সের মতো অসুখের ঝুঁকি কমাতেও সাহায্য করে।