সোনার গয়না চকচকে রাখার কৌশল

নারীরা সোনার গয়না পরে থাকতে খুবই পছন্দ করেন। বিশেষ করে বিয়ের গয়নাগাটির ব্যাপারে মহিলারা একটু বেশি স্পর্শকাতর। তাই এই গয়নাগুলো আর যেভাবে সেভাবে ফেলে রাখলে হয় না। নিতে হবে বিশেষ যত্ন। কিন্তু পরে থাকতে থাকতে কয়েক বছর পরেই সাধের গয়নায় সেই ঝলমলে দ্যুতি আর থাকে না। জেনে কীভাবে সোনার গয়না নতুনের মতো রাখবেন।

ব্যবহারের পর গয়না ঠিক কীভাবে রাখছেন, তার উপর অনেক কিছু নির্ভর করে। কারণ, গয়না পরলে আমাদের শরীরের ঘাম, পানি লাগে। তার ফলে তা সহজেই অপরিষ্কার হয়ে যায়। তাই গয়না খোলার পর তা ভাল করে টিস্যু দিয়ে মুছুন। একটু খোলা হাওয়ায় রাখুন। তারপর তাকে আলমারিতে গুছিয়ে রাখুন।

সোনার গয়না পরে কখনও স্নান বা সুইমিং করবেন না। সুইমিং পুলের পানিকে জীবাণুমুক্ত রাখার জন্য এতে ক্লোরিন মেশানো হয়। কিন্তু এই ক্লোরিন যে কোনও ধাতু নষ্ট করে দিতে পারে। পাশাপাশি সেই ধাতুর রঙও নষ্ট করতে পারে। এমনকি কোনও জড়োয়া গয়না পরে সুইমিংপুলের পানিতে নামলে রত্নের ক্ষতি করতে পারে। তাই সুইমিংয়ের আগে যে কোনও সোনা বা জড়োয়া গয়না খুলে রেখে দিন। আবার নিয়মিত সোনার গয়না পরে গোসল করলে ধীরে ধীরে তার উজ্জ্বলতা ম্লান হতে শুরু করবে।

গয়না সাধারণত সারাক্ষণই ব্যবহার করেন মহিলারা। সেই গয়নাগাটিগুলোকে ছয় কিংবা আট মাস অন্তর পালিশ করুন। নইলে তা অনুজ্জ্বল হয়ে যেতে পারে।আলমারিতে নিশ্চয়ই কিছু গয়না আপনার তোলা রয়েছে। যেগুলো নমাসে ছমাসে একবার পরেন। সেই গয়নাগুলিকে পরার পর ভাল করে টিস্যু দিয়ে মুছে নিন। প্রতিবার ব্যবহারের পর তা পালিশ করান। না পারলে কমপক্ষে বছরে একবার পালিশ করান।

আপনার সাধের গয়না কোনও রাসায়নিকের সংস্পর্শে যাতে না আসে, সেদিকে খেয়াল রাখুন। তাই মেকআপ করা শেষ হলে তবেই গয়না পরুন। আবার মেকআপ তোলার আগে তা খুলে রাখুন।সরাসরি সূর্যালোকে বিয়ের গয়নাগুলো রাখবেন না। কারণ, সূর্যের রশ্মি আপনার পছন্দের গয়নার ক্ষতি করার জন্য যথেষ্ট।

অনেকেই গয়না রাখার জন্য বিশেষ বাক্স তৈরি করান। কারণ যে লকারে সোনা রাখেন, তার ধাতুর সঙ্গে প্রতিক্রিয়া হওয়ার ফলে সোনার উজ্জ্বলতা হারিয়ে যেতে পারে। পাশাপাশি হাওয়ায় উপস্থিত আর্দ্রাতাও সোনার সৌন্দর্যকে নষ্ট করে দেয়। তাই গয়না লকারে রাখুন বা অন্য কোনও গোপন স্থানে– তা পৃথক পৃথক বাক্সে রাখাই ভালো।

সোনার গয়না পরিষ্কার করবেন যেভাবে

একটি বাটিতে ঈষদুষ্ণ পানি নিয়ে তাতে ডিটারজেন্ট পাউডার মেশান। এবার এতে সোনার গয়না ডুবিয়ে কিছু ক্ষণের জন্য ছেড়ে দিন। এতে সামান্য হলুদ গুঁড়া মিশিয়ে দিতে পারেন। তার পর টুথব্রাশের সাহায্যে সেটি পরিষ্কার করে নিন। এর ফলে রোজকার গয়নায় লেগে থাকা ময়লা পরিষ্কার হয়ে যাবে।

হালকা গরম পানিতে অ্যামোনিয়া পাউডার মিশিয়ে তাতে গয়না ভিজিয়ে রেখে দিন। কিছুক্ষণ পর ব্রাশ দিয়ে ঘষে পরিষ্কার করে নিতে হবে। তবে মুক্তো বা রত্ন খচিত গয়না এই মিশ্রণে পরিষ্কার করবেন না। তা না-হলে অ্যামোনিয়া রত্নের ক্ষতি করতে পারে।

আরো