সব সিটি করপোরেশনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া

রাজধানী ঢাকার শর্তে চট্টগ্রামসহ দেশের সব সিটি সার্ভিসে হাফ ভাড়া চালুর ঘোষণা দিয়েছেন পরিবহন মালিকরা। একই সঙ্গে আগামী ১১ ডিসেম্বর থেকে চট্টগ্রামে এ সিদ্ধান্ত কার্যকরের ঘোষণা দেওয়া হয়। তবে আন্তঃজেলা পর্যায়ে চলাচল করা গাড়িতে এ ধরনের সুবিধা পাবেন না শিক্ষার্থীরা।

রোববার (৫ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ এ ঘোষণা দেন।

খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, হাফ ভাড়া নিয়ে ছাত্ররা অনেক দিন ধরে রাজপথে আন্দোলন করছে। তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে রাজধানীতে সিটি সার্ভিসে হাফ ভাড়া চালু করেছি। শিক্ষার্থীরা হাফ ভাড়া দিতে পারছে কি না, এজন্য ঢাকায় ১০টি মনিটরিং টিম করা হয়েছে। আজ (রোববার) চট্টগ্রামেও হাফ ভাড়া চালুর ঘোষণা দিচ্ছি। আগামী শনিবার (১১ ডিসেম্বর) থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। এর আগে মালিকরা শ্রমিকসহ সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে বসে তাদের করণীয় ঠিক করবেন।

তিনি বলেন, শুধু চট্টগ্রাম নয়ে, দেশের যেসব শহরে সিটি সার্ভিস রয়েছে, সেখানে হাফ ভাড়া প্রযোজ্য হবে। এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের ছবিযুক্ত আইডি কার্ড প্রদর্শন করতে হবে। প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এ সুবিধা থাকবে। তবে শিক্ষার্থীদের ছুটি, সাধারণ ছুটি এবং সাপ্তাহিক বন্ধের দিন এ সুবিধা কার্যকর থাকবে না। এছাড়া সিটি সার্ভিস ছাড়া বিভিন্ন এলাকায় চলাচল করা গাড়িতে শিক্ষার্থীরা এ সুবিধা পাবেন না।

এনায়েত উল্যাহ বলেন, শিক্ষার্থীরা আমাদের সন্তান। তাদের দাবি আমরা পূরণ করলাম। এখন আমরা আশা করছি, তারা প্রতিষ্ঠানে ফিরে যাবে এবং তাদের পড়ালেখায় মনোনিবেশ করবেন।

জানা গেছে, গত ৩ নভেম্বর রাতে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়িয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করে। নতুন দাম ভোক্তা পর্যায়ে ৬৫ থেকে বাড়িয়ে ৮০ টাকা করা হয়। এ নিয়ে পরিবহন খাতের বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা বৈঠক করেন।

বৈঠক শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে ধর্মঘটের ঘোষণা না দেওয়া হলেও ৫ নভেম্বর সকাল ৬টা থেকে সারাদেশে গণ ও পণ্য পরিবহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। ৭ নভেম্বর ডিজেলচালিত গাড়িতে ২৭ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর ঘোষণার পর সারাদেশে যাত্রীবাহী বাস চলাচল শুরু হয়।

এরপর থেকে হাফ ভাড়ার সুবিধা না দেওয়ায় আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা। তাদের টানা আন্দোলনের মুখে গত ৩০ নভেম্বর এক সংবাদ সম্মেলনে শুধুমাত্র রাজধানীতে শর্তসাপেক্ষে হাফ ভাড়া সুবিধা প্রদানের ঘোষণা দেন পরিবহন মালিকরা।

তবে শুধু রাজধানীতে এ সুবিধা দেওয়ায় চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন স্থানে আন্দোলন করতে থাকে শিক্ষার্থীরা। গত ২ ডিসেম্বর কোনোরকম শর্ত ছাড়া হাফ ভাড়া নিশ্চিতসহ নয় দফা দাবিতে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বরাবর স্মারকলিপি দেয় চট্টগ্রামের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।