গার্মেন্ট পণ্য কেনাবেচার ‘ফেব্রিক লাগবে’ অ্যাপের উদ্বোধন

ক্রেতা ও বিক্রেতার মাঝে গার্মেন্টস পণ্য কেনাবেচার নতুন প্ল্যাটফর্ম ‘ফেব্রিক লাগবে’। এই অ্যাপে গার্মেন্টস পণ্য প্রদর্শনের পর দর কষাকষির মাধ্যমে ক্রেতা ন্যায্য দামে পণ্য কেনার সুযোগ পাবেন। অ্যাপটিতে ক্রেতা ও বিক্রেতার মাঝে দর কষাকাষির সুযোগ রাখা হয়েছে। কোনও ক্রেতা একটি পণ্য কিনতে কত টাকা দিতে চান, সেটি বলার সুযোগ আছে।

মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) রাজধানীর পুরানা পল্টনে (পল্টন টাওয়ার) ইআরএফ অডেটোরিয়ামে অ্যাপভিত্তিক এই সেবার উদ্বোধন করা হয়।

এ সময় ‘ফেব্রিক লাগবে লিমিটেড’র উদ্যোক্তা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘তৈরি পোশাক রফতানিকারকদের ব্যাক ওয়ার্ড লিংকে যারা কাজ করেন যেমন- স্পিনিং, সাইজিং, উইভিং, ডাইং প্রিন্টিং ও ফিনিশিং সেকটরে— এসব প্রতিষ্ঠানকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি দিতে হয়। এরপর পেমেন্ট পেতে পড়তে হয় নানা সমস্যার। এই সব সমস্যাকে চিহ্নিত করে পণ্য খুঁজে পেতে এই অ্যাপ সহায়তা করবে।’

অনুষ্ঠানে বলা হয়, এই প্ল্যাটফর্মটি টেক্সটাইল ও তৈরি পোশাক ইন্ডাস্ট্রিজের দুই খাতের সমন্বয়ে বিটুবি (বিজনেস টু বিজনেস) ধরনের, সেখানে বিক্রেতা তার পণ্য (তৈরি পোশাক, কাপড়, সুতা, ট্রিমস অ্যান্ড এক্সসরিজ, সাইজিং, ডাইং প্রসেসিং, কেমিক্যাল, মেশিনারিজ) সরাসরি ক্রেতার কাছে বিক্রি করতে পারবেন। অপরদিকে ক্রেতা তার পছন্দের উৎপাদনকারীর কাছ থেকে কোনও ধরনের মধ্যস্বত্বভোগী ছাড়াই সুলভ মূল্যে পণ্য কিনতে পারবেন।

এই অ্যাপে উভয় পক্ষের বিড অপশন রাখা হয়েছে। এছাড়া চাকরি বা শ্রমিক অর্ডার নামেও দুটি অপশন আছে। জব অপশনে শিক্ষিত, অর্ধশিক্ষিত বা অশিক্ষিত যে কেউ অবস্থান নির্বিশেষে নিজের বায়োডাটা ও আনুষঙ্গিক তথ্য দিয়ে নিবন্ধিত হতে পারবেন। এতে গার্মেন্টস মালিকরা সহজে তাদের প্রয়োজনীয় কর্মী বা শ্রমিক পছন্দ করে ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে নিয়োগ দিতে পারবেন। অ্যাপের মাধ্যমে লেনদেনে উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠানকে দশমিক ৫০ শতাংশ থেকে এক শতাংশ পর্যন্ত কমিশন দিতে হবে।

এ ধরনের অ্যাপে ক্রেতা ও বিক্রেতা সমস্যার সম্মুখীন হলে, বা বিক্রেতা যে পণ্য বিক্রি করবেন সেটি না দিলে, কোনও তদারকির ব্যবস্থা আছে কিনা, এমন প্রশ্নে নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘এখানে পণ্যের লেনদেন সম্পূর্ণ হওয়ার পর রেটিংয়ের ব্যবস্থা আছে। কোনও পক্ষ ক্ষতির সম্মুখীন হলে তিনি পণ্যের নিচে তার মন্তব্য জানাবেন, যাতে পরে অন্য ক্রেতারা সে পণ্যটি কিনতে উৎসাহ বা নিরুৎসাহিত হন।’