হামাসের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা

ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের ব্যবসায়িক কার্যক্রমে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি বিভাগ। পাশাপাশি সংগঠনটির অর্থমন্ত্রী আবদুল্লাহ ইউসুফ ফয়সাল সাবরির বিরুদ্ধেও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া হামাসের যেসব বিনিয়োগকারী ও কোম্পানির সঙ্গে ফিলিস্তিনের এই সশস্ত্র গোষ্ঠীর সম্পর্ক রয়েছে, তাদের ওপরও নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বাইডেন প্রশাসন।

মঙ্গলবার এ নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ভয়েজ অব আমেরিকা।

গণমাধ্যমটি জানিয়েছে, হামাসের বিনিয়োগ কার্যালয়কে নিষ্ক্রিয় করার লক্ষ্যেই এমন নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি বিভাগ।

ট্রেজারি বিভাগের সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ও অর্থনৈতিক অপরাধ বিভাগের সহকারী সচিব এলিজাবেথ রোসেনবার্গের দাবি, হামাসের বিনিয়োগ কার্যালয়ের মালিকানায় ৫০ কোটি ডলারের বেশি সম্পদ রয়েছে। সুদান, তুরস্ক, সৌদি আরব, আলজেরিয়া এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতে পরিচালিত হচ্ছে এসব কার্যালয়।

রোসেনবার্গ বলেন, ‘হামাসের বেশ কিছু গোপন বিনিয়োগের তথ্য আমাদের কাছে রয়েছে। তাদের বিনিয়োগ কার্যালয় এসব দেখাশোনা করে এবং এসব বিনিয়োগ থেকে যথেষ্ট অর্থ আয় করে এই রাজনৈতিক গোষ্ঠী। আর তারপর এই অর্থ তারা ব্যয় করে সন্ত্রাসবাদী কার্যক্রমে। গাজার অধিবাসীরা যে ব্যাপক দরিদ্রতার মধ্যে দিন যাপন করছে, তার জন্য প্রধানত দায়ী হামাস।’