৪৩তম বিসিএসে লিখিত পরীক্ষায় যেসব নির্দেশনা মানতে হবে

৪৩তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা শুরু হতে যাচ্ছে আগামী ২৪ জুলাই। আবশ্যিক বিষয়গুলোতে এ পরীক্ষা চলবে ৩১ জুলাই পর্যন্ত। পরীক্ষা সামনে রেখে পরীক্ষার্থীদের জন্য বেশ কিছু নির্দেশনা দিয়েছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)।বুধবার (২২ জুন) পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) আব্দুল্লাহ আল মামুন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

যেভাবে জানা যাবে ৪৪তম বিসিএস প্রিলিমিনারির ফলযেভাবে জানা যাবে ৪৪তম বিসিএস প্রিলিমিনারির ফল বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ৪০তম বিসিএস পরীক্ষা-২০২০ এর প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তির শর্তানুযায়ী ২৪ জুলাই হতে ৩১ জুলাই পর্যন্ত অনুষ্ঠেয় আবশ্যিক বিষয়ের লিখিত পরীক্ষার জন্য গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা-

পরীক্ষা হলে বইপুস্তক, সব প্রকার ঘড়ি, মোবাইল ফোন, ক্যালকুলেটর, সব ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস, ব্যাংক-ক্রেডিট কার্ড সদৃশ কোনো ডিভাইস, গয়না, ব্রেসলেট ও ব্যাগ আনা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। নিষিদ্ধ সামগ্রীসহ কোনো প্রার্থী হলে প্রবেশ করতে পারবেন না।

পরীক্ষা কেন্দ্রের গেটে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট-পুলিশের উপস্থিতিতে প্রবেশপত্র এবং মেটাল ডিটেক্টরের সাহায্যে মোবাইল ফোন, ঘড়ি, ইলেকট্রনিক ডিভাইসসহ নিষিদ্ধ সামগ্রী তল্লাশির মধ্য দিয়ে প্রার্থীদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে।পরীক্ষার দিন উল্লিখিত নিষিদ্ধ সামগ্রী সঙ্গে না আনার জন্য সকল প্রার্থীর মোবাইল ফোনে এসএমএস প্রেরণ করা হবে। এসএমএস বার্তার নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে।

পরীক্ষার সময় প্রার্থীবৃন্দ কানের ওপর কোনো আবরণ রাখবেন না, কান খোলা রাখতে হবে। কানে কোনো ধরনের হিয়ারিং এইড ব্যবহারের প্রয়োজন হলে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শপত্র পূর্বাহ্নে কমিশনের অনুমোদন গ্রহণ করতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, পরীক্ষার কেন্দ্রে কোনো প্রার্থীর নিকট বর্ণিত নিষিদ্ধ সামগ্রী পাওয়া গেলে তা বাজেয়াপ্তসহ বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (বয়স, যোগ্যতা ও সরাসরি নিয়োগের জন্য পরীক্ষা) বিধিমালা ২০১৪-এর বিধি ভঙ্গের কারণে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিলসহ ভবিষ্যতে কর্ম কমিশন কর্তৃক গৃহীতব্য সকল নিয়োগ পরীক্ষার জন্য উক্ত প্রার্থীকে অযোগ্য ঘোষণা করা হবে।

প্রসঙ্গত, ৪৩তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিসিএসে বিভিন্ন ক্যাডারে ১ হাজার ৮১৪ জন কর্মকর্তা নেওয়া হবে। এরমধ্যে প্রশাসন ক্যাডারে ৩০০ জন, পুলিশ ক্যাডারে ১০০ জন, পররাষ্ট্র ক্যাডারে ২৫ জন, শিক্ষা ক্যাডারের জন্য ৮৪৩ জন, অডিটে ৩৫ জন, তথ্যে ২২ জন, ট্যাক্সে ১৯ জন, কাস্টমসে ১৪ জন ও সমবায়ে ১৯ জন নিয়োগ দেওয়া হবে।